এসএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট আগামী ২৮ নভেম্বর (সোমবার) প্রকাশ

২০২২ সালের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এ বছর ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৮৮ দশমিক ৪২ শতাংশ। পাসের হারে এগিয়ে রয়েছেন বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এর আগে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। দুপুর ১২টা থেকে নির্দিষ্ট ওয়েবসািইটে এ ফলাফল জানা যাচ্ছে। এ ছাড়া মোবাইল ফোনের এসএমএস এবং শিক্ষাবোর্ড ও বিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে এ ফলাফল পাওয়া যাবে।

এই ওয়েবসাইটের (https://eboardresults.com/v2/home) মাধ্যমে পরীক্ষার্থী বিস্তারিত ফলাফল জানতে পারবেন।

শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইটের পাশাপাশি মোবাইল ফোনের এসএমএসে প্রতি বছরের ন্যায় ফল জানতে পারবে শিক্ষার্থীরা। মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ফল পেতে SSC লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে 2022 লিখে 16222 নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসেই ফল পাওয়া যাবে।

দাখিলের ফল পেতে Dakhil লিখে স্পেস দিয়ে Mad লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে 2022 লিখে 16222 নম্বরে পাঠাতে হবে। আর কারিগরি বোর্ডের ক্ষেত্রে SSC লিখে স্পেস দিয়ে Tec লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে 2022 লিখে 16222 নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফলাফল পাওয়া যাবে।

এসএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট আগামী ২৮ নভেম্বর (সোমবার) প্রকাশ করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের মোর্চা আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার।

তিনি বলেন, এসএসসির ফল প্রকাশের তারিখ নির্ধারণের প্রস্তাবনা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পাঠানো হয়েছিলো। আগামী ২৮ নভেম্বর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ হতে পারে।

এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২ দেখার নিয়ম

এবার ২০ লাখ ২১ হাজার শিক্ষার্থী এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশের অপেক্ষায় আছেন। পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের কথা। সে ৬০ দিন শেষ হবে ৩০ নভেম্বর।
১৫ সেপ্টেম্বর সারাদেশে একযোগে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। ১ অক্টোবর উচ্চতর গণিত (তত্ত্বীয়) পরীক্ষার মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষা শেষ হয়। ১০ থেকে ১৫ অক্টোবরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় ব্যবহারিক পরীক্ষা। এ বছর নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা এবং কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মোট ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেন। নয়টি সাধারণ ধারা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৫ লাখ ৯৯ হাজারের বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: